• support@microhostbd.com
  • +8801886584839
  • Online: 8.00 Am T0 10 PM (GMT+6)
  • Login
80k+

Active Courses

33k+

Active Students

278k+

Video Courses

80k+

Active Course

অর্গানিক রিচ কী
Posted on / blog

অর্গানিক রিচ কী ?

একটি পেজ বা blog থেকে কত মানুষ পেজ বা blog এর কনটেন্ট দেখছে, সেটিকে বলা হয় অর্গানিক রিচ। পেইড প্রমোশন করলে  তাৎক্ষণিকভাবে সুবিধা পাওয়া যেতে পারে। একই সঙ্গে এটি পেজ বা blog এর অর্গানিক রিচে প্রভাবও ফেলতে পারে।

এই অর্গানিক রিচ অনেক বিষয়ের ওপর নির্ভর করে। একটি পোস্ট দেওয়ার পর কত মানুষ ক্লিক করছেন, লাইক, কমেন্ট করছেন সেটির অনুপাতে ওই পোস্টটি ছড়াতে থাকে।

অর্গানিক রিচ যত বাড়বে আপনার পেজ বা blog তত সাবলীল থাকবে। আপনার কনটেন্ট অনুযায়ী ক্রেতা বা গ্রাহক পেজ বা blog এ আসবে। অর্গানিক রিচ বাড়লে আপনার ক্যাম্পেইন মানুষের কাছে দ্রুত পৌঁছাবে। একটা সময় পেইড ক্যাম্পেইনেও ক্লিকপ্রতি আপনার খরচ কমে যাবে।

ফেইসবুকের এই ক্লিকপ্রতি খরচের বিষয়টি নিলামের মতো। ক্লিকপ্রতি খরচ সব সময় পরিবর্তন হয়, যেটি আপনি নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন না। সম্ভাব্য একটি হিসাব সেট করতে পারবেন।

আপনি যখন কোনো ক্যাম্পেইন শুরু করেন, তখন ফেইসবুক অটোমেটিক হিসাব করে আপনার বাজেট এবং সময় অনুযায়ী একটি বিড নির্ধারণ করে দেয়।

যেহেতু বিষয়টি নিলামের মতো তাই আপনাকে লাখ লাখ পেজের সঙ্গে ‘লড়াই’ করতে হয়। এই ‘লড়াই’ অনেক বিষয়ের ওপর নির্ভর করে।

বছরের কোন মাস, সপ্তাহের কোন দিন, দিনের কোন সময় আপনি বিজ্ঞাপন দিচ্ছেন সেটির ওপর খরচের বিষয়টি নির্ভর করে। যে বিষয়ে, যে মাসে, যে দিনে, যে দেশে, যে শহরে, যে এলাকায় বিজ্ঞাপন দিচ্ছেন সেখানে সেই সময় ব্যবহারকারীদের আনাগোনা এবং অন্য পেজের পেইড ক্যাম্পেইন বেশি থাকলে আপনার খরচও বেড়ে যাবে।

এভাবে তিনটি বিষয় বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে কাজ করে এনগেজমেন্ট র‌্যাংকিং, কোয়ালিটি র‌্যাংকিং ও কনভারসেশন র‌্যাংকিং। তিনটির একটিতে কম স্কোর থাকলে খরচ বেড়ে যাবে।

★এবার আসি কয়েকটি আইডিয়া নিয়ে

  • শুধু পোস্ট শিডিউল এবং প্রতিদিন মিনিটে মিনিটে শুধু শেয়ার দিলেই হবে না। স্বয়ংক্রিয় করার এই অভ্যাসের পাশাপাশি পাঠক কিংবা গ্রাহককে ‘হিউম্যান টাচ’ দিতে হবে। আপনার প্রতিষ্ঠানে কারা কাজ করছেন, প্রতিদিন তাদের সময় কীভাবে কাটছে সে বিষয়ে ছবি এবং ভিডিও পোস্ট করতে পারেন। টিমের সদস্যদের ট্যাগ করে ভিডিও আপলোড করতে পারেন। মানুষ সব সময় এমন ‘হিউম্যান টাচ’ চায়। এতে পেজের প্রতি লাইকারদের বিশ্বাস এবং আস্থা বাড়ে।এর ফলে তারা বেশি সময় কাটায়।
  • ফেইসবুক শুধু আগ্রহের ভিত্তিতেই চলে উদ্দেশ্যে ভিক্তিতে নয়। তাই শুধু প্রোডাক্ট ও সার্ভিস পোস্ট করে গেলেই হবে না। ৭৫+ শতাংশ পোস্ট হতে হবে সামাজিক। না হলে পোস্টপ্রতি ক্লিক বাড়বে না। ছোট ভিডিও পোস্ট করতে পারেন। মাঝে মাঝে লাইভ করতে পারেন। পেজের অডিয়েন্সের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়াতে হবে। তাদের মন্তব্য নিতে হবে।
  • আপনার কাস্টমার বা ফ্যান গ্রুপে শুধু অনুসারী বাড়াতে থাকলে কোনো লাভ হবে না। কনটেন্ট ভালো না হলে বরং রিচ কমতে থাকবে।অর্থ্যাৎ- আপনার প্রাসঙ্গিক পোস্ট দিতে হবে। কনটেন্ট তৈরিতে পরিশ্রম করতে হবে। এমন কনটেন্ট দিতে হবে যা মানুষের জন্য উপকারী।
  • পেজের অবস্থা বুঝতে আপনাকে প্রতিনিয়ত অর্গানিক রিচ বিশ্লেষণ করে যেতে হবে। এ জন্য পেজে গিয়ে ‘Export Data’ থেকে ডেটা দেখতে পারেন। এই অপশনে গেলে ‘Page data’ এবং ‘Post Data’ অপশন পাবেন।

এখান থেকে পোস্ট ডেটা দেখাটা বেশি দরকারি। পেজ ডেটা থেকে পাবেন আপনার পারফরম্যান্সের অবস্থা। অন্যদিকে পোস্ট ডেটা থেকে বুঝতে পারবেন কোন ধরনের পোস্ট বেশি মানুষ দেখেছে কিংবা বেশি পছন্দ করেছে। আর এটাই মূলত পার্থক্য গড়ে দেয়।

 

Microhostbd

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *